পাক-ভারত সং’ঘর্ষে ভারতীয় সেনা অফিসার নি’হত ।

পাক-ভারত সং’ঘর্ষে ভারতীয় সেনা অফিসার নি’হত ।

কাশ্মীরের রাজৌরিতে মঙ্গলবার ভারতীয় সেনাবাহিনী ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে ব্যাপক গোলাগু’লির খবর পাওয়া গেছে। এতে ভারতীয় এক সেনা অফিসার নি’হত হয়েছেন। আ’হত হয়েছেন দুই জন বেসাম’রিক লোক। ঘটনার বিস্তারিত স’ম্পর্কে জানা যায়, রাজৌরি এলাকা দিয়ে মঙ্গলবার ভারতে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। সেসময় পাকিস্তানের দিক থেকে আসা বিচ্ছিন্নতাবাদীর গু’লিতে মৃ’ত্যু হয় ভারতীয় সেনা বাহিনীর জুনিয়র এক অফিসারের। ভারতীয় সেনা সূত্রের খবর, মঙ্গলবার নৌশেরা

সেক্টরের কালাল অঞ্চলে ঘটেছে এই ঘটনা। এদিন যে ভাবে, ভারতীয় সেনা অফিসারকে গু’লি করে হ’ত্যা করা হয়েছে, তা পাকসেনার কৌশলি পদক্ষেপ বলেই দাবি করা হয়।এছাড়া ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, এদিনের শুরুতেও সং’ঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে কাশ্মীরের পুঞ্চ জে’লার বালাকোট এলওসিতে গু’লি চালিয়েছে পাকিস্তান। এসময় ফুল জেহান নামে ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধা আ’হত হয়েছেন। চিকিত্‍সার জন্য ওই বৃদ্ধাকে রাজৌরির হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভারতশাসিত কাশ্মির সীমান্তে

ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে চরম উত্তে’জনা বিরাজ করছে। নতুন করে সৃষ্ট এই উত্তে’জনায় চলছে গু’লি ও পাল্টা গু’লি। এরই মধ্যে উভয় দেশের বেশ কয়েকজন সেনা সদস্যসহ বেসামরিক মানুষ নি’হত হয়েছেন। সর্বশেষ পাকিস্তানের আজাদ কাশ্মিরে হা’মলা চালিয়ে ৬ সেনা সদস্যসহ পাকিস্তানের ২০ জন নাগরিক ‘হ’ত্যার ’ দাবি করেছে ভারত। সেই সঙ্গে ভারতীয় সেনারা সেখানকার চারটি স’ন্ত্রা’সী ঘাঁটি’ গু’ড়িয়ে দিয়েছে বলেও দাবি করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার ও টাইমস অব

ইন্ডিয়া। তবে ভারতীয় এ দাবি প্রত্যাখ্যান করে পাকিস্তানের আইএসপিআর বলছে, ভারতীয় বাহিনীর হা’মলায় এক পাকিস্তানি সে’না ও ৬ বেসামরিক নাগরিক নি’হত হয়েছেন। পাশাপাশি পাকিস্তানের প্রভাবশালী ইংরেজি দৈনিক পত্রিকা দ্য ডনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আজাদ কাশ্মির ভারতের সেনাদের হা’মলার উপযুক্ত জবাব দিয়েছে পাকিস্তান। পাকিস্তানের এক সেনা হ’ত্যার বদলায় অন্তত ৯ জন ভারতীয় সেনাকে হ’ত্যা করেছে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী। পাশপাশি পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর

হা’মলায় আ’হত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন ভারতীয় নাগরিক। এছাড়া ভারতীয় সেনাদের দুটি বা’ঙ্কারও গু’ড়িয়ে দেয়া হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানানো হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কাশ্মির সীমান্তে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে নতুন করে উ’ত্তেজনা দেখা দিয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত নতুন করে গো’লাগু’লির কোনো খবর পাওয়া যায়নি। কা’শ্মীর ই’স্যুতে উ’ত্তেজ’না বিরাজ করছে দুই প্রতিবেশি দেশ ভা’রত ও পা’কিস্তানের ম’ধ্যে। যু’দ্ধ বিরতি ল’ঙ্ঘন করে ভা’রতের গো’লাবর্ষ’ণে পা’কিস্তানের

অ’ন্তত ৬ বেসামরিক নাগরিকের মৃ’ত্যু হয়। পা’কিস্তানও পাল্টা আ’ক্রমণ করলে এতে ভা’রতের ক’মপ’ক্ষে ৯ সে’না নি’হত হওয়ার ঘ’টনা ঘ’টে। রোববার (২০ অক্টোবর) ভা’রত-পা’কিস্তান সী’মান্তে এ ঘ’টনা ঘ’টে। চলতি বছর নি’য়ন্ত্রণরে’খায় এ’কদিনে এটাই সবচেয়ে বেশি হ’তাহ’তের ঘ’টনা বলে জানা গেছে। পা’কিস্তানের ইন্টার সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশনস (আইএসপিআর) জানায়, সী’মান্তের জুরা, শাহকোট এবং নওসেরি সেক্টরে বিনা উসকানিতে ভা’রতীয় বা’হিনীর যু’দ্ধ বি’রতি

ল’ঙ্ঘনেরর জাবাব দিয়েছে পা’কিস্তান। প্রতিষ্ঠানটি জানায়, এতে ভা’রতের ৯ সে’না নি’হত হ’য়েছেন। এছাড়া আরও বেশ কয়েকজন আ’হত হয়েছেন। একই স’ঙ্গে ভা’রতের দুটি বা’ঙ্কার ধ্বং’স হ’য়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। ভা’রতীয় সে’নাবাহি’নীর বরাত দিয়ে সংবাদসংস্থা এএনআই জানানো হয়, এরপর পা’কিস্তান অ’ধিকৃত জাম্মু-কা’শ্মীরের ভেতরে চারটি স্থা’নে হা’মলা চালায় ভা’রতীয় সে’নাবা’হিনী। ওই হা’মলায় বেশ কয়েকজন সন্ত্রাসী হ’তাহ’ত হওয়ার খ’বর পাওয়া যায়। এএনআই বলছে, পা’কিস্তান অ’ধিকৃত কা’শ্মীরের নিলাম ঘাট উ’পত্যকায় হা’মলা চালায় ভা’রতীয় সে’নাবাহি’নী। এতে পা’কিস্তান সে’নাবাহি’নীর থেকে পাঁচ সদস্য ও

জ’ঙ্গি সংগঠন জয়েশ-ই-মোহাম্মদ এবং লস্কর-ই-তৈয়বার অনেক সদস্য হ’তাহ’ত হয়েছে বলে দা’বি করছে ভা’রতীয় সে’নাবা’হিনী। ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার কান্দাল সী’মান্তে ভারতীয় সী’মান্ত র’ক্ষাকা’রী বা’হিনী বি’এস’এফ’র গুলিতে এক বাংলাদেশী নি’হত হয়েছে। নিহত বাংলাদেশী যু’বক শ্রীকান্ত রায় (৩০) হরিপুর উপজেলার আমগাঁও কালচা গ্রামের খেলুরামের পুত্র। গত রোববার সন্ধ্যা ৬টার সময় এ ঘ’টনা ঘটলেও সোমবার দুপুরে খ’বর জা’নিয়েছে নি’হতের প’রিবারের লোকজন।

তবে বি’জিবি’র পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে এখন প’র্যন্ত বি’এস’এফ কোন ধরণের মেসেজ আমাদের দে’য়নি। মৃ’ত্যুর খ’বর নিশ্চিত করে শ্রী’কান্তের ভাই কালুকান্ত মুঠোফোনে জানান, রোববার স’ন্ধ্যার সময় ভারতের পাঞ্জাবে ইট ভাটায় কাজ করার উদ্দেশ্যে অ’বৈধ পথে কান্দাল সী’মান্ত দিয়ে ভা’রতের খোচাবাড়ী ক্যাম্পের সন্নিকটে পৌছালে বি’এস’এফ তাকে উ’দ্দেশ্যে করে গু’লি করে। এতে নি’হত হয় শ্রী’কান্ত। তিনি আরও বলেন, সা’রারা’ত শ্রী’কান্তের ম’রদে’হ পড়ে ছিল। সকালে খোচাবাড়ী

সী’মান্তের বি’এস’এফ সদস্যরা লা’শ তুলে নিয়ে গেছে। আমরা সকাল থেকে বি’জিবি’র মাধ্যমে বি’এসএফ’র সাথে যো’গাযো’গ করার চে’ষ্টা করছি। এখন প’র্যন্ত বি’এসএফ’র প’ক্ষ থেকে কোন পত্র কিংবা জ’বাব দে’য়নি। হরিপুর উপজেলার আমগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পাভেল সরকার মুঠোফোনে বলেন, নি’হতের পরিবারের লোকজন বলার পর আমি কান্দাল বি’জিবি ক্যাম্পে গি’য়েছিলাম। বিজিবি’র সদস্যরা ঘ’টনা স’ম্পর্কে কিছু জানাতে পারেনি। তবে পরিবারের লোকজন লা’শ ফেরত

নেওয়ার জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানা গেছে। মুর্শিদাবাদের জল’ঙ্গির চর পাইকমারির জিরো পয়েন্টে বিএসএফ-এর স’ঙ্গে বিজিবি-র গু’লির ল’ড়াইয়ে গু’লিবি’দ্ধ হয়ে ভারতীয় সীমা’ন্তরক্ষা বা’হিনী বিএসএফের এক জোয়ান নি’হত । মৃ’তের নাম বিজয় ভান। আ’হত হয়েছেন আরও একজন। আ’হত জওয়ানের নাম রাজবীর সিং। তিনি বিএসএফ-এর হেড কনস্টেবল। বর্তমানে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি। জানা গিয়েছে, মাছ ধ’রা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে

ঝামেলা বাধে। চর পাইকমারিতে মাছ ধ’রতে গিয়েছিলেন কয়েকজন ভারতীয় মৎস্যজীবী। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, মাছ ধ’রতে ধ’রতে তাঁরা জিরো পয়েন্টে অর্থাৎ ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকায় চলে গিয়েছিলেন। অভিযোগ, সেইসময়ই ৩ জন ভারতীয় মৎস্যজীবীকে আ’টক করে বিজিবি (Border Guards Bangladesh)। এরপরই তাঁদেরকে উ’দ্ধার করতে যান বিএসএফ জওয়ানরা। জানা গিয়েছে, তখনই বিএসএফ-এর স’ঙ্গে বিজিবি-র গু’লির লড়াই শুরু হয়। বিএসএফ-বিজিবির ফ্ল্যাগ মিটিংয়ের

আগেই গু’লির লড়াই বাধে। ঘ’টনাস্থ’লেই গু’লিবি’দ্ধ হয়ে মৃ’ত্যু হয় বিজয় ভান নামে এক বিএসএফ জওয়ানের। মাথায় গু’লি লাগে তাঁর। আ’হত হন রাজবীর সিং নামে একজন হেড কনস্টেবল। বিএসএফ-এর ১১৭ নম্বর ব্যাটেলিয়নের হেড কনস্টেবল রাজবীর সিং। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বিজিবি-র এভাবে গু’লি চালনার ঘটনায় তীব্র ক্ষো’ভ প্রকাশ করেছে বিএসএফ। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, প্রণব মণ্ডল নামে একজন ভারতীয় এখনও বিজিবি-র হেফাজতে রয়েছেন। বাকি দুজনকে উ’দ্ধার করতে পেরেছে বিএসএফ। ঘ’টনাস্থ’লে পৌঁ’ছেছে’ন বিএসএফের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা। সূত্র – হিন্দুস্তান টাইমস

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme
[X]