সর্বশেষ আপডেট
ইহুদিদের সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই: সৌদি আরব

ইহুদিদের সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই: সৌদি আরব

ই’সরাইলি নাগরিকদের সৌদি আরব ভ্রমণের অনুমোদন আপাতত দেয়া হচ্ছে না। সোমবার সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী এমন দাবিই করেছেন। যদিও এর আগে সৌদি সফরে নিজ নাগরিকদের সবুজ সংকেত দিয়েছে দখলদার ইসরাইল।-খবর এএফপির রোববার ই’সরাইলি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ই’সরাইলের মুসলমান ও ইহুদিদের সৌদি আরবে ধর্মীয় ও ব্যবসায়িক সফরে যাওয়ার অধিকার রয়েছে। কিন্তু সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান সিএনএনকে বলেন,

এই মুহূর্তে ইসরাইলিদের সৌদি আরবে স্বাগত জানানো হচ্ছে না। তিনি বলেন, আমাদের নীতি অপরিবর্তনীয়। ই’সরাইলের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক নেই। ই’সরাইলি পাসপোর্টধারীরা আপাতত সৌদিতে আসতে পারছেন না। অধিকাংশ আরব দেশের মতো অবৈধ ই’সরাইলের সঙ্গে সৌদি আরবের কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই। কেবল জর্ডান ও মিসরের সঙ্গে শান্তিচুক্তি রয়েছে ই’সরাইলের।

কিন্তু ফিলিস্তিনিদের ভূখণ্ডে ই’সরাইলের দখলদারিত্বই তাদের সঙ্গে আরবদের এমন কোনো চুক্তিতে বাধা হয়ে রয়েছে। কিন্তু আরব দেশগুলোর সঙ্গে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে সম্পর্ক গড়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে অবৈধ ই’সরাইলিরা। প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান বলেন, ফিলিস্তিন-ই’সরাইলের সংঘাতের একটি সমাধানে পৌঁছাতে আমরা জোরালোভাবে উৎসাহ দিচ্ছি। দুই পক্ষ যখন একটি শান্তি চুক্তিতে পৌঁছাবে, তখনই এ অঞ্চলে ই’সরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক করা হবে কিনা; তা আলোচনার টেবিলে আসবে বলে আমি মনে করি।

আজকের আলোচিত খবর… এবার রাশিয়া-মার্কিন সেনাদের মধ্যে তুমুল সং’ঘর্ষ, যু’দ্ধের শঙ্কা। এবার সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় হাসাকা প্রদেশের তাল আমর এলাকায় রাশিয়া এবং মার্কিন সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এর ফলে নতুন করে যুদ্ধের আ’শঙ্কা দেখা দিয়েছে। ওই এলাকার নিয়ন্ত্রণ মূলত কুর্দি গেরিলাদের হাতে এবং সেখানে মার্কিন সেনারা অবস্থান করছে। এ ব্যাপারে রাশিয়ার মস্কো টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তাল আমর এলাকার তেল খনি থেকে মার্কিন সেনারা তেল চুরি করছে

বলে অভিযোগ উঠেছে। জানা যায়, তাল আমর শহরের প্রবেশ মুখে দু’দেশের সেনাদের মধ্যে সং’’ঘর্ষ হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি তেল ক্ষেত্রে যাওয়ার মহাসড়কে কৌশলগত এই শহরের অবস্থান। এদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার সেনাদের মধ্যে সং’’ঘর্ষের পর তাদের সামরিক যানগুলো দু’দিকে চলে যায়। তবে দুই দেশের সেনাদের মধ্যে সং’’ঘর্ষের পর ওই এলাকায় রাশিয়ার হেলিকপ্টার

এবং মার্কিন যু’’দ্ধবিমান উড়তে দেখা গেছে। এদিকে গত ২০১১ সাল থেকে সিরিয়ায় সহিংসতা চলছে। দেশটিতে সন্ত্রাসীদের বিরু’’দ্ধে লড়াইয়ে সিরিয়ার সরকারি সেনাদের সহযোগিতা করে আসছে রুশ বাহিনী। অন্যদিকে ২০১৪ সাল থেকে সিরীয় সরকার কিংবা জাতিসংঘের কোনো অনুমতি না নিয়েই সিরিয়ায় কথিত সন্ত্রা’’সবাদ-বিরোধী লড়াইয়ের নামে সেনা মোতায়েন করে রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme