সর্বশেষ আপডেট
এবার টঙ্গীতে রাতে ট্রাকে তুলে বিউটিশিয়ানকে গণধ’র্ষণ

এবার টঙ্গীতে রাতে ট্রাকে তুলে বিউটিশিয়ানকে গণধ’র্ষণ

গাজীপুরের টঙ্গীর মিলগেট এলাকায় বিউটি পার্লারের এক নারী কর্মীকে গণধ’র্ষণের অ’ভিযোগে চারজনকে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ।আজ শনিবার তাদের গাজীপুর আ’দালতের মাধ্যমে জে’ল হাজতে পাঠানো হয়েছে।গ্রে’প্তারকৃতরা হলেন-মুন্সিগঞ্জের সদরামপুর গ্রামের নয়ন, বরিশালের দক্ষিণ বুতুলিয়া গ্রামের শাহাবুদ্দিন, জামালপুরের জিন্নাবাজার গ্রামের বাবু মণ্ডল ও ময়মনসিংহের কান্দাপাড়া

গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন। পু’লিশ জানিয়েছে, শুক্রবার রাত সোয়া ১১টার দিকে টঙ্গীর চেরাগআলী এলাকা থেকে ওই নারী তার সহকর্মী এক ছোট ভাইকে নিয়ে রিকশাযোগে আরিচপুর যাচ্ছিলেন।তাদের বহনকারী রিকশাটি মিলগেইট এলাকায় পৌঁছালে অ’ভিযুক্তরা ওই নারীকে টে’নে-হিঁচ’ড়ে নামায়। পরে তাকে খালি ট্রাকে তুলে নিয়ে নয়ন ও শাহাবুদ্দিন ধ’র্ষণ করে।

আর অ’পর দুই আ’সামি মেয়েটির ছোট ভাইকে আ’ট’কে রাখে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টঙ্গী পূর্ব থা*নার পরিদর্শক (ত’দন্ত) মোহাম্ম’দ জাহিদুল ইস’লাম। তিনি জানান, শুক্রবার রাতেই অ’ভিযান চালিয়ে অ’ভিযুক্তদের গ্রে’প্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় ভু’ক্তভো’গীর বাবা বাদী হয়ে নারী ও শি’শু নি’র্যাতন দ’মন আইনে মা’মলা দায়ের করেছেন।

আজকের আলোচিত খবর… ফরিদপুরের পুকুরে মিলল ১৮১৮ সালের ধাতব পিলার। ফরিদপুর পৌরসভার পুকুরে নির্মাণ ও সংস্কারকাজ চলাকালে পানির মধ্যে থেকে একটি ধাতব পিলার উ’দ্ধার করা হয়েছে। পিলারটি বর্তমানে ফরিদপুর পৌরসভা ভবনের নিচতলায় রাখা হয়েছে। পিলারটি দেখতে অনেকেই ভিড় জমিয়েছেন।সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পৌরসভার পুকুরের পশ্চিম দিকে

নারীদের জন্য একটি ঘাট নির্মাণের মাটি খোঁড়ার সময় ধাতব পিলারটি পাওয়া যায়। ফরিদপুর পৌরসভা এবং ব্র্যাকের আরবান ডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের উদ্যোগে শহরের প্রা*ণকেন্দ্রে অবস্থিত জুবিলি ট্যাক নামে খ্যাত পৌর পুকুরের সংস্কার ও নির্মাণকাজ চলছে।ব্র্যাকের আরবান ডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের সমন্বয়কারী ইকরাম হোসেন বলেন, সোমবার দুপুরে পৌর পুকুরের পশ্চিম দিকে নারীদের

জন্য নির্মাণাধীন একটি ঘাটের মাটি খোঁড়ার সময় ধাতব পিলারটি পাওয়া যায়। পরে সেটি উ’দ্ধার করে পৌরসভা ভবনে নিয়ে আসা হয়। পিলারটির দৈর্ঘ্য দুই ফুট ও প্রস্থ এক ফুট। পিলারটির এক দিক চোখা অ’পরদিকে ত্রিভুজ আকৃতির। পিলারের গায়ে লেখা রয়েছে বিটিইএসডট’কম। অ’পরদিকে ১৮১৮ লেখা। যা দেখে মনে হচ্ছে এটি ১৮১৮ সালের পিলার। ফরিদপুর পৌরসভার মেয়র শেখ মাহাতাব আলী মেথু বলেন,

এটি ধাতব নির্মিত। তবে কি ধাতুতে তৈরি তা শ*নাক্ত করা যায়নি। ব্রিটিশ আমলে জমির পরিমাপ ও বজ্রপাত ঠেকাতে যে পিলারগুলো মাটিতে পোঁতা হয় সেগুলোর একটি হতে পারে এটি।মেয়র বলেন, ধাতব নির্মিত পিলারটি উ’দ্ধারের পর বিষয়টি ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনের এমপি ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ফরিদপুরের জে’লা প্রশাসক অ’তুল সরকার, পু’লিশ সুপার মো আলীমুজ্জামানকে জানানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme