সর্বশেষ আপডেট
লাইভ শোতে ২ সৌদি সমকামি তরুণীর ভালোবাসা প্রকাশ! ঝুড়িতে পাওয়া গেল কন্যা শি’শু, নাম দেওয়া হল ‘একুশে’ জরুরী আবহাওয়া বিজ্ঞপ্তিঃ সোমবার থেকে বৃষ্টি, চলবে তিনদিন! সুন্দরীর বিয়ের ফাঁদ, অপহরণ করে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি, এরপর বেরিয়ে আসল চাঞ্চল্যকর তথ্য… বাসে বাবার বয়সী ব্যক্তির যৌ’ন হয়’রানি, কেঁদে বিচার চাইলেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী আরব আমিরাতে করোনাভাইরাসে বাংলাদেশি প্রবাসী আ’ক্রা’ন্ত যুক্তরাষ্ট্রে কোরআন ছুঁয়ে শপথ নিলেন পুলিশ কর্মকর্তা গর্ভবতী হওয়া নিয়ে এবার মুখ খুললেন নায়িকা বুবলী, জেনে নিন নায়িকার স্বীকারুক্তি… কুমিল্লায় কয়েক হাজার কোটি টাকা নিয়ে শতাধিক কোম্পানি উধাও এবার নোবেলকে বিয়ে করছেন পূর্ণিমা!
ট্রেনের কেবিনে আপত্তিকর অবস্থায় কলেজের অধ্যক্ষ ও ছাত্রী আটক

ট্রেনের কেবিনে আপত্তিকর অবস্থায় কলেজের অধ্যক্ষ ও ছাত্রী আটক

জামালপুরে দেওয়ানগঞ্জ গামী তিস্তা এক্সপ্রেস ট্রেনের কেবিনে ত`রুণীর সাথে আ’পত্তিকর অবস্থায় ইস’লামপুর জে.জে.কে এম গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুস সালাম চৌধুরী দেওয়ানগঞ্জ স্টেশনের রেলওয়ে পু’লিশের হাতে আ’ট’ক হয়েছে। জানা যায়,আজ রবিবার দুপুরে জামালপুর স্টেশন থেকে তিস্তা ট্রেনের একটি স্পেশাল কেবিনের বুকিং নেয় তিনি (অধ্যক্ষ আব্দুস সালাম চৌধুরী)।

ঐ কেবিনে আনন্দ মহন কলেজ থেকে মাস্টার্স পাশ ধারী এক ত`রুণী ও অধ্যক্ষ সালাম চৌধুরী দেওয়ানগঞ্জ যাওয়ার উদ্দেশ্যে উঠেন। যথাসময়ে ট্রেনটি দেওয়ানগঞ্জে পৌছায়,ট্রেনটি সীমান্তবর্তী স্টেশন হওয়ায় সব যাত্রী নেমে গেলও ঐ কেবিনটি বন্ধ দেখা যায়, এতে লোকজনের সন্দেহ হলে রেলওয়ে পু’লিশকে অবহিত করেন।অ’তপর একদল পু’লিশ এসে অধ্যক্ষ

ও ত`রুণীকে আ’পত্তিকর অবস্থায় পেয়ে দুজনকে আ’ট’ক করে দেওয়ানগঞ্জ জি আর পি থা*নায় সুপর্দ করেন। আ’ট’ককৃত অধ্যক্ষ ও ত`রুণীকে ঐ ট্রেনেই জামালপুর নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন, জামালপুর জি আরপি থা*নার অফিসার্স ইনচার্জ তাপস কুমা’র পন্ডিত।এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত তিনি আরও জানান, আ’ট’ককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য।

আজকের আলোচিত খবর… আল্লাহকে গালি দিয়ে ভাইরাল সেই নারী বয়াতির ক্ষমা প্রার্থনা। মহান আল্লাহকে অ’শ্লীল ও কু’রুচিপূর্ণ ভাষায় গা’লি দেওয়া রিতা দেওয়ান তার ভু’লের জন্য করজো’ড়ে ক্ষমা চেয়েছেন। ধর্মপ্রাণ মুসলামানদের কাছে নিঃশ’র্ত ক্ষমা চেয়ে সামাজিক মাধ্যম ইউটিউবে এক ভিডিও সাক্ষাৎকার দিয়েছেন রিতা দেওয়ান। এসময় মায়ের সাথে হাতজোড় করে ক্ষমা চেয়েছে রিতা দেওয়ানের দুই মেয়ে আফরিন দেওয়ান ও নাজমিন দেওয়ান। শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) ‘গান রুপালি এইচডি’ নামক

একটি ইউটিউব চ্যানেলে রিতা দেওয়ানের ক্ষ’মা চাওয়ার ভিডিও আপলোড করা হয়। ভিডিওতে দেখা যায় উপস্থাপকের সঙ্গে রিতা দেওয়ান তার দুই মেয়েকে নিয়ে হাজির হয়েছেন। উপস্থাপনের কুশল বিনিময় প্রশ্নের জবাবে রিতা দেওয়ান তেমন ভালো নেই উল্লেখ্য করেন। কেন ভালো নেই জানতে চাইলে রিতা বলেন, ‘আমার একটা গান ইউটিউব চ্যানেলে ভাইরাল হয়ে সমস্যায় পড়ে গেছি। আমার ভুলটি ছিলো,

আসলে তো আল্লাহর সাথে কখনো পাল্লা চলে না। তার দয়ায় তার রহমতে আমি বাচ্চা ছেলে মেয়ে নিয়ে গান করে বেঁচে আছি। সেদিন যে পালাটা ছিল তাতে আমার প্রতিপক্ষ ছিল পরম। অভিনয় করতে গিয়ে তাকে আক্রমণ করতে গিয়ে আমার সৃষ্টিকর্তার দিকে চলে গেছে। এটা আমার ভুলে হয়ে গেছে’। রিতা বলেন, ‘পালা করতে গেলে সারারাত-সারাদিনব্যাপী কথা বলতে হয়। একটা কথা এদিক-সেদিক হয়ে যায়।

ভুল হয়ে যায়। তবে এ কথাটা আমার ভুল হয়ে গেছে। মুসলিম ভাই বোনদের কাছে আমি বলবো আমার ভুল হয়ে গেছে। আমাকে ক্ষমাকে করে দিবেন। আমি যেন আর কোনোদিনও ভুল না করি।ছোট মেয়ে আফরিন দেওয়ান বলেন, ‘আমি বলতে চাই- আমার মায়ের হয়ে আমি আপনাদের কাছে ক্ষমা চাই। আর আমি প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি আমার মা আর এরকম ভুল করবেন না’।

বড় মেয়ে নাজমিন দেওয়ান বলেন, ‘আসলে আমার মা বাউল গান করে। গান করতে গিয়ে অনেক শিল্পীরা অনেক ধরনের ভুল হয়। আমার মা ভুল হয়ে গেছে। আমার মায়ের হয়ে আমরা দুই বোন ক্ষমা চাচ্ছি। আমরা প্রতিশ্রিুতি দিচ্ছি না আমার মা এরকম ভুল করবে না। আপনারা আমার মায়ের জন্য না, আমাদের মুখের দিকে তাকিয়ে আমার মাকে ক্ষমা করে দিবেন’।

প্রসঙ্গ, সম্প্রতি একটি পালা গানের আসরে প্রতিপক্ষকে আ’ক্রমণ করতে গিয়ে রিতা দেওয়ান মহান আল্লাহ তাআলাকে নিয়ে চরম ধৃ’ষ্টতা, অ’শ্লীল ও কুরু’চিপূর্ণ মন্তব্য করেন। আল্লাহকে শয়তান, মুনাফিক, দুইমুখী বলেও গালি দেন। পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিও ভাইরাল হলে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। রিতা দেওয়ানের শাস্তিও দাবি করেন অনেকে। উল্লেখ্য,

সম্প্রতি শরিয়ত বয়াতি নামক এক বাউল শিল্পী পালা আসরে ইসলামে গান বাজনা জায়েজ বলে বক্তব্য দেন। বক্তব্যে তিনি আল্লাহ-রাসূল (সা.) ও ইসলাম নিয়ে নানান আপত্তিকর কথা বলেন। ধর্মবিরোধী বক্তব্যের প্রতিবাদে সরব হয় স্থানীয় মুসল্লিরা। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলাও হয়। পরে বিক্ষোভের মুখে তাকে গ্রেফতার করে টাঙ্গাইল পুলিশ। বর্তমানে তিনি জেল হাজতে আছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 newstodaybd.com
Design BY NewsTheme